1. admin@ritekrishi.com : ritekrishi :
  2. ritekrishi@gmail.com : ritekrishi01 :
‘বোরো মৌসুমে সেচের অভাবে সিলেট বিভাগে প্রায় ২৬ ভাগ জমি পতিত
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন

‘বোরো মৌসুমে সেচের অভাবে সিলেট বিভাগে প্রায় ২৬ ভাগ জমি পতিত থাকে’

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৮০ পড়া হয়েছে

সিলেট অঞ্চলের পতিত জমি আবাদ ও ফসলের উৎপাদনশীলতা শীর্ষক এক কর্মশালায় বলা হয়, বোরো মৌসুমে সেচের অভাবে সিলেট বিভাগে প্রায় ২৬ভাগ জমি পতিত থাকে। এছাড়াও যেটুকু জমিতে আবাদ করা হয়, সেখানে সেচের পানির অভাবে ফলন প্রায় অর্ধেকে নেমে আসে।

শনিবার দুপুরে সিলেট জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, গাজীপুরের উদ্যোগে আয়োজিত সেচ ব্যবস্থাপনা উন্নয়নের মাধ্যমে সিলেট অঞ্চলের পতিত জমি আবাদ ও ফসলের উৎপাদনশীলতা শীর্ষক কর্মশালায় মূল প্রবন্ধে ড.মো. মনিরুজ্জামান এই তথ্য প্রকাশ করেন।

তিনি মূল প্রবন্ধে নদী-খাল খনন, ভূগর্ভস্থ পানিতে সম্পুরক সেচের ব্যবস্থা করা, উন্নত সেচ বিতরণ পদ্ধতি স্থাপনের মাধ্যমে হাওর এলাকার ফসলের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি এবং বিপুল পরিমাণ পতিত জমি আবাদের পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো. শাহজাহান কবিরের সভাপতিত্বে এ কর্মশালায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব ওয়াহিদা আক্তার প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। ওয়াহিদা আক্তার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা মোতাবেক প্রতি ইঞ্চি জমি আবাদের আওতায় আনতে হবে। কৃষি প্রধান এ দেশের কৃষি উন্নয়নের লক্ষ্য কৃষি সংশ্লিষ্ট সকলকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে সিলেট অঞ্চলের কৃষি উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে এ অঞ্চলের সেচের পানির অভাব দূর করতে হবে। সকল পতিত জমিকে চাষাবাদের উপযোগী করে তুলতে হবে। নদী-খাল খনন ও সেচ অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে পানির প্রাপ্যতা বৃদ্ধি করতে হবে। উন্নত সেচ বিতরণ ব্যবস্থার ব্যবহার বৃদ্ধি করে সেচের পানির অপচয় রোধ করতে হবে। গবেষকদের গবেষণালব্দ জ্ঞান কৃষির উন্নয়নে কাজে লাগাতে হবে। তিনি গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলোকে হাওর এলাকায় গবেষণা কর্মকন্ড আরো জোরদার করার আহবান জানান।

ব্রি প্রশিক্ষণ বিভাগের সিনিয়র লিয়াজো অফিসার ড. মো. আব্দুল মোমিনের পরিচালনায় কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক এসএম শহীদুল ইসলাম । বক্তব্য লাখেন, কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব নাজিয়া শরীন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সরেজমিন উইং এর পরিচালক তাজুল ইসলাম পাটোয়ারী, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. দেবাশীষ সরকার, পরিচালক ড. মো. খালেকুজ্জামান, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার আবু আহমদ সিদ্দিকী প্রমুখ।

সূত্র :বাসস

সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Error Problem Solved and footer edited { Trust Soft BD }
More News Of This Category
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - রাইট কৃষি-২০২১-২০২৪
Web Design By Best Web BD